অনলাইন আয়ের সবচেয়ে আলোচিত এবং সহজ কাজ পিটিসি,পিটিসি সাইট নিয়ে সম্পূর্ণ ধারনা

পোস্ট  বার দেখা হয়েছে
পিটিসি নিয়ে আমি আগে বলেছি আবার বলছি দেখা যায় এ নিয়ে দেখি মানুষের আগ্রহের কমতি নেই। আর আমাদের জন্য তো বটেই। আমরা কাজ করতে চাই কম, আয় করতে চাই বেশি।

দিন দিন মানুষের আগ্রহ বেড়েই চলছে। কারন হিসাবে বলা চলে, #সহজ, #কোন কাজ জানতে হয় না,  #৩০-৪৫ মিনিট সময় ব্যয় করলে হয়, #আয় কম বলা যাবে না।

আমার মতে, পিটিসি সাইটে আয় করতে চাইলে সময় দিন, বিভিন্ন ফোরাম, ফেসবুক গ্রুপ এবং অনলাইন আয়ের বিভিন্ন Website বা ব্লগে। আমি নিজেই বিভিন্ন জায়গায় (বিভিন্ন ফোরাম, ফেসবুক গ্রুপ ইত্যাদি জাগায় ) Web এ এ্যাড দিয়ে রেফারেল বাড়াবার চেষ্টা করি। সেখানে আমি বিভিন্ন দেশের রেফারার পাই। "USA, UK, BELZIUM, NETHERLAND,HONGKONG, INDIA, PAKISTAN" আরও কয়েকটি দেশের, এই সকল দেশের ইউসার-রা  প্রতিদিন কাজ করে, কিন্তু দেখা যায় আমাদের দেশের অনেকে এ্যাকাউন্ট ওপেন  করে, নিয়মিত কাজ করে না,  আবার অনেকে এত অল্প আয় দেখে আগ্রহ হারিয়ে ফেলে।  আসুন দেখি ইউরোপ,আমেরিকা পারলে আমরা পারবনা কেন।


 PTC এর পুর্ন মিনিং হচ্ছে “Paid To Click”অর্থাৎ বিভিন্ন বিজ্ঞাপন দাতারা যাদের বিজ্ঞাপনের বাজেট কম তারা তুলনা মুলক কম মুল্যে পিটিসি সাইটে এড দেয় কিন্তু সেই এড দেখবে কে? তাই আমার আপনার মত লোকজন সেই এড গুলো দেখি এবং এই এড গুলো দেখার বিনিময়ে পিটিসি সাইট  আমাদের নির্দিষ্ট  অর্থ প্রদান করে থাকে।  আপনাকে সাইট গুলো প্রতিদিন একটি নির্দিস্ট পরিমান এড দিবে এবং আপনি সেই এড গুলো দেখবেন। প্রতি এড দেখার বিনিময়ে আপনাকে কিছু  সেন্ট পর্যন্ত অর্থ  পে করবে (ফ্রি মেম্বারশিপের ক্ষেত্রে)। এছাড়া আপনার রেফারেলে কেউ যদি ওই সাইটে রেজিস্ট্রেশন করে, তবে তাদের দেখা প্রতি এডের বিনিময়ে আপনি পাবেন ৫% । আপনি ভালো সাইট গুলো  থেকে গড়ে রেফারেল ছাড়া দৈনিক ১০ সেন্ট আয় করতে পারবেন (ফ্রি মেম্বারশিপের ক্ষেত্রে)।  তবে এই নিয়ম সকল সাইট-এর জন্য নয়।  এক এক সাইট এ এক একরকম, (রেফার % কত করে দিবে, এড ভিউ থেকে কত দিবে) এই গুলো সম্পূর্ণ সাইট এর উপর নির্বর করে।

প্রথমেই আপনাদের কে  বলি আপনি যদি কোন কাজ এ দক্ষ হয়ে থাকেন ( যেমন গ্রাফিক্স ডিজাইন, কোন প্রোগ্রামিং ল্যাংগুয়েজ,ডাটা এন্টি বা অন্য যেকোন ধরনের সফটওয়্যারে) যদি আপনার দক্ষতা থেকে থাকে, তাহলে পিটিসি সাইটে কাজ করে নিজের মূল্য বান সময় নষ্ট করবেন না দয়া করে, সেক্ষেত্রে আপনি ফ্রিল্যান্সিং করে অধিক আয় করতে পারবেন। পিটিসি শুধু মাত্র তাদের জন্য, যাদের দিনে কিছু ফ্রী সময় আছে কিন্ত কোন কাজ পারেন না,বা অনলাইনে আয়ের ব্যাপারে একেবারে নতুন বা আয়ের জন্য কাজ শিখছেন।

সাবধানতা:  ইন্টারনেটে অনেক পিটিসি সাইট আছে যার বেশির ভাগই ভুয়া (scam) পেমেন্ট করেনা। তাই সবার কাছে অনুরোধ থাকবে কোন সাইট দেখেই কোন খোজ খবর না নিয়ে কাজ করা শুরু করবেন না।   পিটিসি সাইট গুলোর ৯০% ই ভুয়া (scam) অর্থাৎ স্ক্যাম। কিন্তু ওই ১০% পিটিসি থেকে সত্যি আয় করা যায়। যে সাইটে কাজ করবেন তার সম্পর্কে গুগলে (Google ) এ সার্চ করুন সাইটটি সম্পর্কে বিস্তারিত জানুন।

আজ আমি আপনাদের কতগুলি টেকনিক শিখিয়ে দিবো যেগুলো মেনে চললে ধরা খাবার সম্ভাবনা খুবই কম থাকবে।

মুলত ৪ ধরনের পিটিসি সাইট আছে: Elite PTC Site:-  এই পিটিসি সাইট গুলো অনেক পুরনো, কোন রকম সমস্যা ছাড়াই নিয়মিত গ্রাহকদের পেমেন্ট করে আসছে। এই ধরনের পিটিসি সাইট খুব কম, অনেক খুজে বের করতে হয়, কিন্তু কাজ করার জন্য নিরাপদ।

Legit PTC site:- পুরোনো সাইট, অতীতে কিছু সমস্যা দেখা গিয়েছিলো সেগুলো রিকভার করে বর্তমানে  গ্রাহকদের নিয়মিত পেমেন্ট করে যাচ্ছে, তবে স্ক্যাম হবার হাল্কা পাতলা সম্ভাবনাও আছে। কাজ করা যেতে পারে।

New PTC site:-  এসব পিটিসি সাইট একবারেই নতুন লোভনীয় অফার যুক্ত, ম্যাক্সিমাম নিউ সাইট কিছুদিন পেমেন্ট করার পর স্ক্যাম হয়ে যায় (এক থেকে তিন মাসের মধ্যে), বাজারে এদের সংখ্যাই বেশি। কাজ করা প্রচুর রিস্কি এবং এখানে কাজ করে আয় করার সম্ভাবনা ৭০%। তাই নতুনদের এ ধরনের সাইট এড়িয়ে যাবার পরামর্শ রইলো।

Scam site!!!:- যেসব লিগিট বা নিউ সাইট গ্রাহকদের হটাৎ পেমেন্ট বন্ধ করে দেয়, উল্টা পালটা অ্যাকাউন্ট ব্যান করে দেয় সেগুলোকে Scam সাইট বলে। এসব সাইট থেকে  দূরে থাকুন।

যদি কোন সাইট সম্পর্কে স্ক্যাম (scam) হিসেবে কোন তথ্য পান তাহলে ভুলেও সেই সাইটে কাজ করে সময় নষ্ট করবেন না।

প্রতি মাসে যারা ১০০$-২০০$ আয় করতে চান:
১. আপনার হাতে যদি প্রতিদিন ৩০-৪৫ মিনিট সময় থাকে তবে এই ট্রিক্স গুলো দেখতে পারেন।

২. প্রথমেই ১০টি এলিট পিটিসি সাইট নির্বাচন করুন। শুনতে খুব সহজ মনে হচ্ছে বাট এই খোজাটাই সবচে কঠিন। হাজার হাজার পিটিসি সাইট থেকে এলিট সাইট খুজতে জান বের হয়ে যাবে।  একটা কথা মনে রাখবেন এলিট সাইট পাওয়া এত সোজা কথা না, সাইট নির্বাচনের ক্ষেত্রে বেশি সময় নিন, গুগলে Top 10 Elite Ptc, Elite Ptc ইত্যাদি কথা লিখে সার্চ দিন, দেখবেন অনেকেই ফাও ফাও সব সাইটকে এলিট লিখে রেফারেল ভিক্ষা চাইছে। সেই সব সাইটের নাম আবার গুগল এ লিখে সার্চ দিন, বিভিন্ন ফোরামে এবং ব্লগে যাবেন, ওই সাইট সম্পর্কে মানুষের  মন্তব্য দেখবেন। যদি গুগল এ খোজা খুজির সময় কোথাও ওই সাইট সম্পর্কে উল্টা পাল্টা বা স্ক্যাম হিসাবে তথ্য পান তবে ওই সাইট বাদ দিন। ২-১দিন খোজা খুজির কাজ করলে এমনি সব বুঝে যাবেন।

৩. এমন এলিট সাইট নির্বাচন করুন যেগুলো রেফারেল ছাড়া আপনাকে দিনে ৩-১০ সেন্ট পে করবে। কিছু সাইট আছে যেগুলো ৪টি এড দেখার বিনিময়ে আপনাকে ৪সেন্ট দিচ্ছে আবার কিছু সাইট আছে যেগুলো দিনে আপনাকে ঠিকই ৪সেন্ট পে করছে কিন্তু তার বিনিময়ে এড দেখাচ্ছে ১০-১২টি, মানে “পার এড পে” তারা খুব কম করছে, এতে করে আপনার বেশি সময় লাগবে ,সম্ভব হলে সেগুলো পরিহার করুন।

৪. যেসব অরিজিনাল পিটিসি সাইটে দেখবেন প্রতি ক্লিকে আপনাকে সামান্য বেশি পে করছে বাট মিনিমাম পেমেন্টের পরিমান খুবই বেশি যেমন ১৫$ ২০$ এরকম তখন সেসব সাইটে অ্যাকাউন্ট খুলবেন না কারন রেফারেল ছাড়া সেই মিনিমাম পেমেন্টে পৌছাতে আপনার বছর কাবার হয়ে যাবে। সাধারানত যেসব এলিট অথবা লিগিট সাইটে  মিনিমাম ক্যাশ আউট ২$-৫$ সেগুলো সিলেক্ট করুন।

৫. একটি পিসি অর্থাৎ একটি আইপি এড্রেস থেকে কোন পিটিসি সাইটে একটি মাত্র অ্যাকাউন্ট করা যাবে।

৬. একই আইপি থেকে একাধিক অ্যাকাউন্ট করার চেস্টা করবেন না এতে ২টি অ্যাকাউন্টই ব্যান হবার সম্ভাবনা থাকে।

৭. বিভিন্ন লোভনীয় অফার যুক্ত নতুন পিটিসি সাইট পরিহার করুন, যেমন দেখলেন অ্যাকাউন্ট খুললেই ১$ বোনাস অথবা ১ম ১০০০ জন পাবেন প্রিমিয়াম অ্যাকাউন্ট এর সুবিধা ইত্যাদি ইত্যাদি, মনে রাখবেন এগুলো স্ক্যাম ছাড়া আর কিছুই না।

৮. কাজ শুরু করার আগে আপনার যেসব বন্ধু বান্ধব, কাজিন, রিলেটিভ যারা পিটিসি সম্পর্কে জানেনা, তাদের কনভেন্স করে আপনার ডাইরেক্ট রেফারেল করে নিন, নূন্যতম ১০জন হলে খুব ভালো হয়।

৯. সবসময় রেফারেলের সংখ্যা বাড়াতে চেস্টা করবেন কারন মুলত রেফারেলের সংখ্যার উপরেই আপনার ইনকামের পরিমান নির্ভর করবে। আপনার রেফারেল লিঙ্ক যেকোন পিটিসি অ্যাকাউন্ট এর ব্যানার অপশন এ থাকবে। ওই লিঙ্কের মাধ্যমে আপনার বন্ধুদের রেজিস্ট্রেশন করান।

১০. সবসময় চেস্টা করবেন পরিচিত বা অন্য কারো রেফারেল এ যোগ দিতে, কারন আপনি যদি রেফারেল ছাড়া যোগ দেন তবে সাইটের এডমিন আপনাকে প্রতি মাসে মাসে আপনার অনুমুতি না নিয়ে বিভিন্ন মানুষের কাছে  রেন্টেড রেফারেল হিসাবে বিক্রি করবে। আমার জন্য কারো যদি একটু উপকার হয় তবে ক্ষতি কি?

১১. যদি কাজ করার ইচ্ছা থাকে তবে একটু কস্ট করে নিয়মিত কাজ করবেন কারন সাইটে নিয়মিত কাজ না করলে অর্থাৎ দিনে নির্দিস্ট সংখ্যক বিজ্ঞাপন না দেখলে আপনার রেফারেল এর ক্লিকে টাকা পাবেন না এবং একটি নির্দিস্ট সময় ইনএক্টিভ থাকলে আপনার পিটিসি অ্যাকাউন্ট অটোমেটিকেলি ডিলিট হয়ে যাবে।

১২.  অনেক সময় অ্যাকাউন্ট খুলতে ঝামেলা হতে পারে বিশেষত যারা মোবাইল কোম্পানি গুলোর শেয়ারড আইপি ইউজ করে যেমন গ্রামীণ, বাংলালিঙ্ক, রবি, এয়ারটেল ইন্টারনেট। সেক্ষেত্রে যে কোন ভালো আইপি চেঞ্জার সফটওয়্যার দ্বারা আইপি চেঞ্জ করে অ্যাকাউন্ট টা খুলে নিতে পারেন।

১৩. আপনি কিছু অর্থের বিনিময়ে নির্দিস্ট সময়ের জন্য (যেমন ১মাস) কিছু রেফারেল কিনতে পারেন। তবে এক্ষেত্রেও সাবধান, বুঝে শুনে টাকা ইনভেস্ট করবেন আর এক সাথে অনেক টাকা ইনভেস্ট করার দরকার নাই, ধরা খেলে নিজের চুল ছেড়া ছাড়া কোন উপায় থাকবে না।

১৪. ১০টি সাইটের পিছনে আপনাকে প্রতিদিন সময় ব্যয় করতে হবে ৩০-৪৫মিনিট। একটি একটি করে ১০টি সাইটের এড দেখতে কিন্তু অনেক সময় লাগবে, ৫টি করে সাইট ৫টি টেব এ খুলবেন। প্রতি এডে ক্লিক করার পর পর ই ব্রাউজারের ইমেজ লোড অফ করে দিন তবে এড তারাতারি লোড হবে। এড দেখা শেষ হলে আবার ইমেজ লোড অন করুন এবং নতুন এডে ক্লিক করার পর একই পদ্ধতি অবলম্বন করুন।

১৬ . প্রতি ১৫দিনে একবার করে আপনার সাইট গুলো সম্পর্কে গুগলে খোজ খবর নিন যে সাইট ঠিক ঠাক আছে কিনা।

শুধু কাজ করলেই হবেনা কাজ করে সেই টাকা হাতেও আনতে হবে। প্রায় সব পিটিসি সাইট পেজা (Payza)  সাপোর্ট করে তাই আপনার যদি পেজা (Payza)  একাউন্ট না থেকে থাকে তাহলে ->>এখান থেকে<<- পেজা (Payza) একাউন্ট করে নিন। যেহেতু বেশিরভাগ পিটিসি সাইট ভুয়া তাই নতুনদের জন্য খোজ খবর করে এমন কিছু পিটিসি সাইটের ঠিকানা আপনাদের দিব যেসব সাইট রেগুলার তার ওয়ার্কারদের পে করে।

PaidVerts

এটি  My-Traffic-Value -এর একটি শাখা, আর My-Traffic-Value বিগত ৪ বছর ধরে অনলাইন-এ পে করে আসছে। "Paidverts"- নিয়ে -->> এখানে<<-- বিস্তারিত তথ্য দেওয়া আছে দেখে আসতে পারেন।

Share Up To 110 % - 10% Affiliate Program

এটি রিভিনিও শেয়ারিং সাইট Trafficmonsoon এই সাইটে প্রতি ক্লিক ০.০০৫$, ০.০০১$ থেকে  0.01$ - 0.02$ করে প্রতিদিন 10টি এড দেয়। এবং প্রতিদিন ২ থেকে ৩ বার এড দিয়ে থাকে। "trafficmonsoon" - নিয়ে -->> এখানে<<-- বিস্তারিত তথ্য দেওয়া আছে দেখে আসতে পারেন। 


নিওবাক্স পিটিসি সাইটের রাজাধিরাজ।  নিওবাক্স অনলাইনে আছে ২০০৮ সাল থেকে এবং নিয়মিত পেমেন্ট দিচ্ছে। ৬ বছরেরও বেশী সময় ধরে আছে। 


ক্লিকসেন্স অনলাইনে আছে ২০০৭ সাল থেকে। ২০০৭ সাল থেকে এবং নিয়মিত পেমেন্ট দিচ্ছে। 


পিটিসি থেকে আয় কেমন হতে পারে: সব পিটিসি সাইটের আয় খুবই কম। যা দিয়ে আপনি মূলত নেট বিল এবং পরবর্তীতে যখন আপনি বুঝতে পারবেন রেফারেল কিভাবে ভাড়া নিতে হয়, ডাইরেক্ট রেফারেল পাওয় এবং মেম্বারশীপ আপগ্রেড করলে কি সুবিধা। আপনি পিটিসি সাইটে ভাল আয় করতে হলে ৩-৬ মাস সময় দিতে হবে। প্রথম দিকে আপনার আয় হবে খুবই কম।  তারপরও দেখবেন বিভিন্ন জাগায় পিটিসি সাইট নিয়ে বাংলা,ইংরেজী,চাইনিজ,হিন্দি তে এত এত ব্লগ কেন কেন বলতে পারেন ?  তাহলে বুঝুন কিছু না কিছু রয়েছে পিটিসি তে।

পিটিসি সাইট থেকে  যে টাকা পাওয় যায় তার প্রমাণ:  আপনি প্রতিটিা ভাল এবং পুরনো পিটিসি সাইটের ফোরামে দেখুন প্রতিদিন যারা ডলার তুলছে তাদের পেমেন্ট প্রুফ সহ তাদের সফলতার কথা শেয়ার করছে। এবং এখানে আমি নিজেই একটা প্রমান দিচ্ছি দেখতে পারেনhttp://earning-treeworld.blogspot.com/p/blog-page_98.html

পিটিসি সাইটের ডাইরেক্ট রেফারেল,রেন্টেড,পারচেজ রেফারেল কি?
ডাইরেক্ট রেফারেল: আপনি আমার লিংক থেকে সাইন আপ করলে আপনি আমার ডাইরক্টে রেফারেল।

রেন্টেড রেফারেল: পিটিসি সাইট সরাসরি পাওয়া রেফারেল ভাড়ায় খাটায়।

পারচেজ রেফারেল: অনেক পিটিস সাইট আছে যারা রেফারেল বেচে থাকে,যেমন - পিটিসি সলূশন।

আমার রেফারেল হলে আপনার কি লাভ:  আপনি যদি একটিভ থাকেন এবং বিভিন্ন উপায়ে আয় করতে পারেন তবে আপনার রেফারেল লিংক প্রমোট করার চেষ্টা করা হবে।

আমার রেফারেল না হয়ে গুগল থেকে সার্চ করে বা সরাসরি তাদের সাইটে এ্যাকাউন্ট করলে আপনার লাভ? কিছুই না। সাইট আপনাকে বিভিন্ন জনের কাছে ভাড়া খাটাবে সাইটের লাভ।

পিটিসি সাইট মূলত কাদের জন্য: 
>> যারা একবারেই অলস।
>> অনলাইনে কোন কাজ একেবারেই জানা নেই কিন্তু টাকা আয় করতে চান।
>> গৃহিণী, অক্ষম ব্যক্তি।
>> শুধু শুধু যারা ফেসবুকে বা অন্যান্য সাইটে অনর্থক সময় ব্যয় করে।

পিটিসি সাইট কাদের জন্য নয়: 
>> যারা অতি তাড়াতাড়ি টাকা কামাইতে চায়।
>> অনলাইনে অন্যান্য কাজের দক্ষতা আছে বা শেখার আগ্রহ এবং সুযোগ রয়েছে।

সতর্কতা :  পিটিসি সাইটে টাকা বিনিয়োগ (বিশেষ করে - মেম্বারশীপ আপগ্রেড অথবা BAP বাড়ানো ) করার আগে ভাল করে গুগলিং করুন।
আপনাদের মতামত এই পোস্টকে সার্থক করবে। ধন্যবাদ।







পোস্ট লেখক:

আপনার একটি মন্তব্য একজন লেখক কে ভালো কিছু লিখার অনুপেরনা যোগাই তাই প্রতিটি পোস্ট পড়ার পর নিজের মতামত জানাতে ভুলবেন না। তবে বন্ধুরা এমন কোন মন্তব্য পোস্ট করবেন না যার ফলে লেখকের মনে আঘাত করে! কারণ একটা ভাল মন্তব্য লেখক কে ভাল কিছু লিখার অনুপেরনা যাগাই !


0 comments:

URS mytrafficvalue
ILM
The Most Popular Traffic Exchange
MX.WORLD