কিভাবে নির্ভরযোগ্য ফ্রিলান্সার (Freelancer) হিসেবে নিজেকে তুলে ধরবেন

পোস্ট  বার দেখা হয়েছে
একজন ফ্রিল্যান্সারের জন্য সবচেয়ে খারাপ সময় যখন তার হাতে কোন কাজ থাকে না।  ফ্যিল্যান্সারকে যদি ক্লায়েন্টের পেছনে দৌড়াতে হয় তাহলে সমস্যা আসতে থাকে নানা দিক থেকে। ক্লায়েন্ট কাজের জন্য বললে তিনি যোগ্যতা নিয়ে প্রশ্ন তোলেন, কাজের দাম কমাতে শুরু করেন। ফলে আপনিও পিছিয়ে যেতে থাকেন।

আপনার কাজের ক্ষেত্রে অল্প কিছু কিছু নিয়ম মেনে আপনি ক্রমাগত ভালোর দিকে যেতে পারেন

বিস্বস্ত হোনঃ ফ্রিল্যান্সার (Freelancer) নিজেই নিজের প্রতিস্ঠান। ব্যবসায় যেমন গুডউইল বড় সম্পদ, ফ্রিল্যান্সারের বিস্বস্ততা তেমনি বড় সম্পদ। যে কাজ করেছেন সেগুলি কিভাবে করেছেন এর ওপর নির্ভর করে বিস্বস্ততা গড়ে ওঠে। কাজ সময়মত শেষ করা, ভালভাবে শেষ করা, দায়িত্বপালন করা এসব থেকে বিস্বস্ততা অর্জন করতে হয়। একবার কোন ক্লায়েন্টের বিস্বস্ত হলে পরবর্তীকালে তিনি আপনাকেই খোজ করবেন।

উচু মানের কাজ দিন: ক্লায়েন্ট থেকে কাজ পাওয়ার সবচেয়ে বড় সুযোগ যখন আপনি বলতে পারেন, একাজ আমি অন্যদের থেকে ভাল করতে পারি। যে কাজই করুন, সবচেয়ে ভাল কাজ করুন যেন মানের কারনেই ক্লায়েন্ট আপনার কথা মনে রাখেন। বিপরীতভাবে, দাম কমানো প্রতিযোগিতায় আপনি কখনো পেরে উঠবেন না কারন সবসময়ই কেউ না কেউ আপনার থেকেও কম টাকায় কাজ করে দেবে।

 যোগাযোগ রাখুন: শুধুমাত্র যোগাযোগ না রাখার কারনে আপনি কাজ হারাতে পারেন। হয়ত কোন ক্লায়েন্টের সাথে এই মুহুর্তে কাজ নেই, কাজেই আপনি যোগাযোগ রাখলেন না। আপনার মত অন্যদের কথা কি ভেবে দেখেছেন, যিনি যোগাযোগ করে চলেছেন। কাজ প্রয়োজন হলে তিনি সামনে যাকে পাবেন তাকেই বেশি গুরুত্ব দেবেন।

কাজ ছাড়াও ক্লায়েন্টের সাথে সামাজিক যোগাযোগ রেখে চলুন


ক্লায়েন্টের প্রয়োজন সম্পর্কে খোজ রাখুন: ক্লায়েন্ট আপনাকে নির্দিস্ট কাজ করার দায়িত্ব দিয়েছে, আপনি ঠিক ততটুকুই করলেন। আপনি আপনার কাজে যতটা দক্ষ, যতটা নিয়মকানুন জানেন ক্লায়েন্ট ততটা জানেন না। ক্লায়েন্টে বক্তব্যে যদি কোন বাদ পড়ে আপনার দায়িত্ব সেটা পুরন করা, কাজটি সম্পুর্ন করা। ক্লায়েন্টের চোখ এড়িয়ে গেছে কাজেই আপনার কিছুটা কাজ কম করতে হল এই মনোভাব রাখবেন না।

ভদ্রতা রেখে চলুন: ক্লায়েন্ট সবসময়ই ভাল আচরন করবেন এমন কথা নেই। অনেক সময় অভদ্র আচরন করতে পারেন। তিনি অভদ্র হলে আপনিও অভদ্র হতে পারেন না। ভদ্রতার সম্পর্ক রাখুন, একসময় তিনি নিজের ভুল বুঝবেন।

ইন্টারনেটে পরিচিতি বাড়ান: সোস্যাল নেটওয়ার্কিং কিংবা ব্লগ বর্তমানে জনপ্রিয় একটি বিষয়। কম্পিউটার-মোবাইল ফোনে মানুষ যত সহজে এগুলি ব্যবহার করে ততটা সহজভাবে অন্য যোগাযোগ করা যায় না। নিজের ব্লগ, সোস্যাল নেটওয়ার্কিং সাইটে নিজের পরিচয় রাখুন। যে কাজগুলি করেছেন সেগুলি তুলে ধরুন। এগুলি আপনার বিজ্ঞাপন হিসেবে কাজ করবে এবং এখান থেকেই ক্লায়েন্ট পেতে পারেন।

ব্যবসা প্রতিস্ঠান যেমন একদিনে গড়ে ওঠে না তিমনি ফ্রিল্যান্সারের পরিচিতিও এক দিনে গড়ে ওঠে না। এক দিকে নিজের কাজের ক্রমাগত উন্নতি ঘটাতে হয় সেই সাথে অন্যান্য যোগাযোগ ঠিক রাখতে হয়। এভাবেই একসময় নির্ভরযোগ্য ফ্রিলান্সার  (Freelancer) হিসেবে নিজেকে তুলে ধরতে পারেন। 






পোস্ট লেখক:

আপনার একটি মন্তব্য একজন লেখক কে ভালো কিছু লিখার অনুপেরনা যোগাই তাই প্রতিটি পোস্ট পড়ার পর নিজের মতামত জানাতে ভুলবেন না। তবে বন্ধুরা এমন কোন মন্তব্য পোস্ট করবেন না যার ফলে লেখকের মনে আঘাত করে! কারণ একটা ভাল মন্তব্য লেখক কে ভাল কিছু লিখার অনুপেরনা যাগাই !


0 comments:

URS mytrafficvalue
ILM
The Most Popular Traffic Exchange
MX.WORLD